ওয়ানপ্লাস ৫টি প্রথম ইমপ্রেশনঃ পারবে কি ওয়ানপ্লাস তাদের ফ্যানদের আশা পুরন করতে?

আস্ সালামু ওয়ালাইকুম,

কেমন আছেন সবাই? আশাকরি ভালোই আছেন। আজ নিয়ে এলাম মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ওয়ানপ্লাস ৫টি এর কনফিগারেশন নিয়ে। আশাকরি আপনাদের কিছু সময় বিনোদন দিতে পারব। তো চলুন……

ওয়ানপ্লাস অবশেষে তাদের লেটেস্ট ফ্ল্যাশশিপ বের করতে যাচ্ছে, যেটা ওয়ানপ্লাস ৫ এর প্রত্যাশিত উত্তরাধিকারী। আশা করা যায় এই ফোনটি তাদের ইউজারদের নতুন কিছু দিতে পারবে। পুরাতন মডেলের ত্রুটি বিচ্যুতি কাটিয়ে ভালো কিছু দিবে এটাই ওয়ানপ্লাস ইউজারদের আশা। এছাড়াও নতুন ইউজারদেরও এর উপর আগ্রহ কম নয়। নতুন কিছুর উপর তাদের কৌতূহল থাকবে এটাই স্বাভাবিক। কোম্পানির তৈরি ওয়ানপ্লাস ৫ এর নকশা এবং হার্ডওয়্যার সামঞ্জস্যের জন্য বেশ সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয়েছিলো। ওয়ানপ্লাস ৫টির কিছু ইম্প্রুভমেন্ট করে একে ৫ এর সাথে সমন্বয় করে দেয়া হয়েছে। মজার বিষয় হচ্ছে পূর্বের ফোনটি রিলিজ হওয়ার ৫মাস পরেই এই ফোনটি রিলিজ হতে যাচ্ছে। যদি দামের কথায় আসি তাহলে বলা যায় ওয়ানপ্লাস তাদের পূর্বের ফোনের দামের সাথেই সামঞ্জস্য রেখে দাম নির্ধারণ করেছে। আশা করা যায় ৪৩,৫০০+ টাকা(৬জিবি র‍্যাম ভার্সন) এর মধ্যেই ফোনটি পাওয়া যাবে।

নির্মাণ এবং নকশা

ওয়ানপ্লাস তাদের ওয়ানপ্লাস ৫টি এর নকশা তেমন পরিবর্তন করে নি। তবে ওয়াপ্লাস ৫টি সবচেয়ে বড় পরিবর্তন প্রদর্শন করেছে কম বেজেলের বৈচিত্র্যের জন্য। দেখতে চমৎকার এবং শক্ত নির্মাণ এর কারনে সুন্দর অনুভুতি দেয়। ম্যাটেরিয়াল অপরিবর্তিত রেখেছে। বডি অ্যালুমিনিয়ামের তৈরি এবং ব্যাক পার্টটা কার্ভড। ওয়ানপ্লাস ৫টি এর মধ্যে একটি টাইপ-সি রিভারসেবেল ইউএসবি ২.০ পোর্ট রয়েছে যা ডিভাইসের নীচে থাকবে যা ৩.৫ মিমি হেডফোন জ্যাক এবং স্পিকার গ্রিলের পাশে অবস্থিত। ডিভাইসের ডান পাশে পাওয়ার বাটনের সাথে সিম ট্রে সংযুক্ত আছে। বাম পাশে আছে ভলিউম বাটন এবং এলার্ট স্লাইডার। বাম পাশের উপরের কোনায় আছে ১৬মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

ওয়ানপ্লাস ৫টি-tech4bd.com

ফিচার এবং বিস্তারিত

ওয়ানপ্লাস ৫টি তে আছে ৬.০ ইঞ্চি FHD ডিসপ্লে, অপটিক এমোলেড ডিসপ্লে প্যানেলের সঙ্গে ১৮ঃ৯ অনুপাত। কর্নিয়া গরিলা গ্লাস ৫এর প্রটেকশন. প্রসেসরে পাবেন একটি অক্টা-কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫, সিপিইউ (৪*২.৪৫ গিগাহার্জ Kryo & ৪*১.৯ গিগাহার্জ Kryo) জিপিইউ অ্যাড্রেনো ৫৪০।  ওয়ানপ্লাস ৫টি  দুটি রূপে আসবে, প্রথমটি হবে ৬ গিগাবাইট র‍্যাম এবং ৬৪ গিগাবাইট স্টোরেজ, দ্বিতীয় সংস্করণটিতে ৪ জিবি র‍্যাম এবং ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকবে। ব্যাক ক্যামেরাতে থাকছে ডুয়াল ১৬ ও ২০মেগাপিক্সেল এবং অন্যান্য ক্যামেরা ফিচার পূর্বের মতই থাকবে, অ্যাপারচার ২.০(ফ্রন্ট) ও ১.৭(ব্যাক)। এক্সটারনাল স্লট পাবেন না ফোনে। ব্যাটারি লিথিয়াম আয়ন ৩৩০০এমএএইচ এবং সাথে ড্যাশ চার্জ(ফাস্ট চার্জ)। ডিভাইসটিতে অ্যান্ড্রয়েড ৭.১.১ নুগ্যাট ভিত্তিক অক্সিজেন ওএস ৪.৭.০ রয়েছে। ওয়ানপ্লাস ইতিমধ্যে ডিভাইসের জন্য একটি অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.০ আপডেটে কাজ করছে এবং উভয় ৫ এবং ৫টি ব্যবহারকারীদের ২০১৮ এর শুরুতে আপডেট আশা করতে পারেন। অ্যাকসেলরোমিটার, জাইরোস্কোপ, প্রক্সিমিটি, কম্পাস, লাইট সেন্সর এবং আরজিবি সেন্সর যুক্ত করেছে। ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ডিভাইসটির পিছনে অবস্থিত।

পরিশেষে দেখার বিষয় এটা যে কেনার পর ইউজাররা আসলে কি ভাবছে। কেমন পারফম্যান্স পাচ্ছে তুলনামুলক অন্যান্য ফোনের চেয়ে।

বি. দ্র. অনুগ্রহ করে কমেন্ট করুন এবং আপনাদের মতামত জানান। আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিবেন fb.com/techfunbd. আপনাদের মতামত আমাকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। আপনাদের ভালো লেগেছে কিনা জানাবেন………
সবাইকে ধন্যবাদ।

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...

admin

If somethings happens, i must first tell you.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *