বিগিনার/নতুনদের জন্য কিছু ব্লগিং টিপস এন্ড ট্রিক্স গাইডলাইন (Do Some Blogging)

আস্ সালামু ওয়ালাইকুম,

কেমন আছেন সবাই? আশাকরি ভালোই আছেন। tech4bd.com এ স্বাগতম। আজ নিয়ে এলাম ব্লগিং এর টিপস এন্ড ট্রিক্স নিয়ে। আমি নিজেও নতুন। তাই নিজের জানা এবং কিছু কালেক্টেড আইটেম আপনাদের সামনে সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করব। অনেকেই আমাকে জিজ্ঞাসা করেছে, এই বিষয়টা নিয়ে। আজ সেটাই আলোচনা করব। তো চলুন শুরু করা যাক……..

আপনার ওয়েবসাইটের এসইও ও ট্রাফিক বাড়ানোর জন্য ফ্রেশ কন্টেন্ট, তথ্য বহুল কন্টেন্ট অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারন এটা বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ কাস্টমারের জন্য সম্পর্ক তৈরি করার একটি অন্যতম মাধ্যম। নিয়মিত ব্লগিং এর মাদ্ধমে আপনি >৬০% উপরে রেসপন্স পেতে পারেন। অর্থাৎ আপনার পেজের ভিউ, ট্রাফিক এগুলো দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তবে এক্ষেত্রে নিশ এবং কন্টেন্ট, এসইও অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

১. কি টার্গেট করে ব্লগ বানাতে চান সেটা সেট করুন। ব্লগ কি নিয়ে হবে, কি কি থাকবে, কোন জিনিসগুলো অন্তর্ভুক্ত করতে চান(যেমনঃ ডাউনলোড, সাইন আপ, রেজিস্টার) সেই বিষয়গুলো ভেবে চিন্তে ঠিক করুন।

২. আপনার ব্লগে কি কি অপশন রাখবেন সেটা ঠিক করুন। যেমনঃ About, Services, Contact etc.

৩. ব্লগিং এ সময় দিন প্রথম দিকে একটু বেশি করে এবং ইউজার এক্সপেরিয়েন্স গুলো সংগ্রহ করুন। এতে করে আপনি ব্লগের আরো ভালো ডিজাইনের একটা অভিজ্ঞতা পাবেন এবং ইউজারদের আকৃষ্ট করতে পারবেন।

৪. ইউজার ও অন্যান্য বিষয় গুলো চেক করার জন্য গুগল অ্যানালাইটিক টুলস ইন্সটল করুন।

৫. সুন্দরভাবে ভাষাকে উপস্থাপন করুন যাতে উচ্চারনে কোন ভুল না হয়। বাংলাতে এটা হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

৬. এমন পোস্ট লিখুন যেটাতে আপনি আত্মবিশ্বাসী এবং ভালো জানেন। দরকার হলে সার্চ দিয়ে জানুন।

৭. কোন কোন বিষয় গুলো সবাই জানতে আগ্রহী বা আপনি যে পোস্ট করছেন সেটাতে কোথায় সবাই ভুল করতে পারে সে বিষয়গুলো ক্লিয়ার করুন।

৮. ব্লগ টপিক জেনারেটর টুল ইউজ করতে পারেন ধারনা পাওয়ার জন্য। এটা আপনার জন্য ভাল হবে। যেমনঃ hubspot

৯. আপনার পোস্টগুলো মনে রাখার জন্য গুগল ড্রাইভে একটা শিট তৈরি করে তারিখ অনুযায়ী লিখে রাখতে পারেন।

১০. কিওয়ার্ড খুব গুরুত্বপূর্ণ, পোস্ট তৈরির ক্ষেত্রে। খুব ভাল মানে কিওয়ার্ড নির্বাচন করুন আপনার পোস্টের জন্য।

১১. কমপক্ষে ৫০০ বা তার বেশি ওয়ার্ডের পোস্ট তৈরি করুন।

১২. “কিভাবে এটা করবেন”, এই টাইপের পোস্টে আগ্রহ সবার বেশি থাকে। এই জিনিসটা মাথায় রাখবেন।

১৩. কেজ স্টাডি করে পোস্ট করুন। এতে রিভিউ ভাল পাবেন। নাম্বারড করে করে দিবেন। এতে পোস্ট সুন্দর দেখায় এবং বুঝতে সুবিধা হয়।

১৪. একই জিনিসকে অনেক ভাবে করা যায় এটা দেখাবেন। এতে ওরা আরো আগ্রহী হবে।

১৫. পোস্ট কে কয়েকটি সেগমেন্টে ভাগ করুন। এতে দেখতে এবং পড়তে সুবিধা হবে সবার।

১৬. কিছু ওয়ার্ড যেগুলো গুরুত্বপূর্ণ সেগুলোকে বোল্ড করুন। এতে চোখ সহজে পড়বে এবং সেও বুঝবে এটা প্রয়োজনীয় বিষয়।

১৭. ইমেজ ব্যাবহার করুন পোস্ট কে সবার কাছে সহজ করার জন্য।

১৮. কপিরাইট ফ্রি ইমেজ ব্যাবহার করা বেশি উপযোগী। অনেক ওয়েবসাইট আছে যারা এটা প্রদান করে। যেমনঃ stocksnap pixabay pexels ।

১৯. ইউনিক ইমেজ ব্যাবহার করুন ব্যাকলিঙ্ক তৈরির জন্য।

২০. পোস্টের জন্য উপসংহার এবং সবাইকে প্রশ্ন করুন যাতে তাদের আগ্রহ বাড়ে।

২১. হেডলাইন ছোট রাখুন এবং সুন্দরভাবে ওইটুকুতেই বোঝানোর চেষ্টা করুন।

২২.  এসইও র জন্য বিভিন্ন প্লাগিন ইউজ করতে পারেন।

২৩. সোশ্যাল শেয়ারিং বাটন তৈরি করুন শেয়ারের জন্য।

২৪. স্পেলিং চেক করবেন এবং প্রুফ রিডিং করবেন।

২৫. ব্লগ পোস্টের তথ্য যেন ১০০৫ সঠিক হয়।

২৬. ইমেইল সাবস্ক্রাইবার দের আপডেটেড পোস্টগুলো শেয়ার করুন।

২৭. পপুলার ব্লগ সাইটে আপনার পোস্টগুলো দিন। যাতে সেখান থেকে ভিজিটর আসে।

২৮. আপনার নিশ রিলেটেড সাইট গুলোতে শেয়ার করুন।

২৯. প্রোমট করুন পোস্টকে, কমেন্ট এর রিপ্লাই দিন ইউজারদের।

৩০. প্রথম প্রথম রেসপন্স না পেলেও ব্লগ করা ছেড়ে দিবেন না। কারন আপনাকে একটু সময় দিতে হবে।

আজ তাহলে এই পর্যন্তই। আবার দেখা হবে ইনশাল্লাহ। আল্লাহ হাফেয

বি. দ্র. অনুগ্রহ করে কমেন্ট করুন এবং আপনাদের মতামত জানান। আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিবেন fb.com/techfunbd. আপনাদের মতামত আমাকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। আপনাদের ভালো লেগেছে কিনা জানাবেন………

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (1 votes, average: 5.00 out of 5)
Loading...

admin

If somethings happens, i must first tell you.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *